1. [email protected] : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৬:০২ অপরাহ্ন

বিয়ের আপ্যায়নে খরচ

  • সময় মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ১২২৪ বার দেখা হয়েছে

বর্তমানে একটি বিষয়ে আমাকে ব্যথিত করে আর তাহলো বিয়ে বাড়ির অহেতুক খরচ। এই খরচটা এমন একটা পর্যায় চলে গিয়েছে যে একজন প্রাপ্তবয়স্ক নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ জমা করার আগে বিয়ে করতে পারছে না। যার ফলে নানারকম অসামাজিক কার্যকলাপের পরিমাণ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

তাছাড়াও বিয়ে বাড়িতে যে পরিমাণ খাবার নষ্ট হয় তা দেখে সত্যিই খুব খারাপ লাগে। গুরুজী, আমি চিন্তা করে দেখেছি আমি বিয়ের সময় কোনো লোক দেখানো অনুষ্ঠান না করে অনুষ্ঠানের টাকাটা কোয়ান্টামে দান করে দেবো।

আমার এই ইচ্ছাটা কি যৌক্তিক না কি অযৌক্তিক? একটু জানাবেন। আর বিয়ে উপলক্ষে লোকজনকে খাওয়ানোর নামে যে অপচয় বর্তমানে সমাজে চলছে তার ব্যাপারে আপনার মন্তব্য এবং এর শুদ্ধাচার কী হওয়া উচিৎ তা একটু জানাবেন।

বিয়েতে আমন্ত্রণ করুন সামর্থ্যানুযায়ী!

আসলে বিয়ের ব্যাপারেও হচ্ছে যে, আপনি আত্মীয়স্বজন বন্ধুবান্ধবকে আমন্ত্রণ করবেন। এটার মধ্যে দোষের কিছু নাই। এটা কাঙ্ক্ষিত। বাসায় দাওয়াত করেন বা আপনার সামর্থ্য অনুসারে দাওয়াত করেন।

কিন্তু ধার করে নয়।

আর বিয়ের খাবার হিসেবে কোয়ান্টামে খেজুর নিয়ে আসবেন। আমরা দুটো করে খেজুর সবাই খেয়ে নিব।

দুটো না হয় একটা করে খেজুর সবাই খেয়ে নেব এবং আপনার জন্যে দোয়া করব।

আইটেম হবে সীমিত কিন্তু সুস্বাদু এবং পর্যাপ্ত…

এবং আপনার আত্মীয়স্বজনদের মধ্য থেকে কী করবেন?

অপচয় নয়, সুন্দরভাবে তাদের আপ্যায়ন করেন। আপ্যায়নটা সুন্দর হবে, কিন্তু অপচয় না। যিনি যতটুকু খেতে পারেন খাবেন।

এবং খাবারের আইটেমেও অপচয় করার প্রয়োজন নাই। আইটেম সীমিত কিন্তু সুস্বাদু এবং পর্যাপ্ত। অপচয় যেন না হয় এটার দিকে খেয়াল রাখবেন। এটাই আদর্শ বিয়ে।

ঋণ করে বিয়ে নয়…

আর ঋণ করে কখনো নয়! এই বিয়ের ঋণ এগুলো হচ্ছে সাম্রাজ্যবাদী শোষকদের চক্রান্ত।

প্রথমে হচ্ছে খরচ বাড়াতে উৎসাহিত করে। তারপরে ঋণ দিয়ে আপনাকে দাস বানায়। এবং আমাদের এই উপমহাদেশে বিয়ের ধুমধাম করতে গিয়ে নিম্নবর্ণের পরিবারগুলো হাজার হাজার বছর ধরে দাসে পরিণত হয়েছে।

এবং মানুষকে ঋণজর্জরিত করার জন্যে আগেকার মহাজনরা এই কাজটা করতেন। অতীতের এটাই ছিল নিয়ম।

এবং এখনকার যারা কর্পোরেট ব্যবসা করছেন কর্পোরেট শোষকরাও একই কাজ করছেন।

বিয়ের ঋণ হানিমুনের ঋণ সবকিছুর ঋণ আছে। আপনাকে ঋণ দিয়ে দেবে তারপরে ঋণশোধ করতে থাকেন। দাসের মতো কাজ করতে হবে আপনাকে।

[সজ্ঞা জালালি, ১৭ জুলাই, ২০১৯]

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM
Translate »