1. admin@hostpio.com : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
  2. azmulaziz2021@gmail.com : Azmul Aziz : Azmul Aziz
  3. musa@informationcraft.xyz : musa :
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৪:৫৩ পূর্বাহ্ন

সাইবার হামলার আশঙ্কায় উচ্চমাত্রার সতর্কতা জারি

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ৭৫ বার দেখা হয়েছে

সরকারের ই-গভর্নমেন্ট কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিম (সার্ট) সাইবার হামলার আশঙ্কায় উচ্চমাত্রার সতর্কতা প্রকাশ করেছে। দেশের বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য এ সতর্কতা কার্যকর হবে। বুধবার এ সতর্কতা জারি করা হয়। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সূত্র জানায়, সার্ট এ বিষয়ে অনুসন্ধান করে দেশের কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের ওয়েব পেইজে ‘ক্যাসাব্ল্যাঙ্কা’ নামে স্পর্শকাতর এক ধরনের ভাইরাসের সন্ধান খুঁজে পেয়েছে। এ ভাইরাসটি বিভিন্ন আর্থিক খাত ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহ করছে কৌশলে।

ভাইরাসটি অনেকটা উন্মুক্ত ধরনের। যে কারণে এটিতে অতিরিক্ত ঝুঁকি রয়েছে। এবারের ভাইরাসটিকে উচ্চমাত্রার সাইবার আক্রমণের লক্ষণ বলে মনে করছে সার্ট। এ কারণে সম্ভাব্য সাইবার হামলা ঠেকাতে আর্থিক ও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবারেও সার্ট থেকে সতর্কতা জারি করা হয়। ভাইরাসটি আরও নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে বুধবার উচ্চমাত্রার সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ভাইরাসটির আক্রমনের ধরন সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য পেয়েছে সার্ট। এর মধ্যে ভাইরাসটি সরকারের করোনা বিডি অ্যাপে, মোবাইল ফোনের ডাটা সংগ্রহ ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহের দিকে ঝোঁক রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে কোনো সন্দেহজনক ঘটনা বা অনলাইন সিস্টেমসে কোনো সমস্যা দেখলে তা সঙ্গে সঙ্গে সার্টকে জানাতে বলা হয়েছে।

 

এ প্রসঙ্গে সরকারের ই-গভর্নমেন্ট কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের (সার্ট) প্রকল্প পরিচালক তারেক এম বরকতউল্লাহ বলেন, ভাইরাসটি সম্পর্কে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। এটি বিশেষ কিছু খাতের ওয়েব পেইজের তথ্য ইতিমধ্যেই সংগ্রহ করছে। ম্যালওয়্যার ধরনের ক্যাসাব্ল্যাঙ্কা নামের এ ভাইরাসটি এবারই নতুন। এর আগে এ ধরনের ভাইরাসের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, আগাম তথ্য পাওয়ায় সার্ট সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। এতে এটিও কোনো ক্ষতি করতে পারবে বলে মনে করি না। তবে বেশ সতর্ক থাকতে হবে। সূত্র জানায়, এবারের ভাইরাসটি আগের চেয়ে একটু বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। গত সেপ্টেম্বরের যে ম্যালওয়্যার ভাইরাসটি পাওয়া গিয়েছিল সেটি অনেকটা আবরণযুক্ত। এবারেরটি উন্মুক্ত। যে কারণে এটি বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। অপরিচিত বা অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো কিছু মেইলে বা অনলাইনে পাওয়া গেলে বা দেখা গেলে সেগুলোতে যাতে কেউ ক্লিক না করেন সে জন্য সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত বছরের সেপ্টেম্বরে দেশের আর্থিক খাতে সাইবার হামলা চালাতে ম্যালওয়্যার ভাইরাস পাঠানো হয়েছিল। উত্তর কোরীয় একটি হ্যাকার গ্রুপ এই ভাইরাসটি পাঠিয়েছিল। তবে ওই সময়ে আগে থেকে সতর্ক সংকেত পাওয়ায় ভাইরাসটি হামলা চালিয়ে সফল হতে পারেনি। পর্যায়ক্রমে এটিকে সব সার্ভার থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এরপর এ বছরের জানুয়ারিতে আরেকটি ম্যালওয়্যার ভাইরাসের সন্ধান পায় সার্ট। এটি বিভিন্ন সংস্থার অনলাইন সার্ভারকে কেন্দ্র করে অবস্থান করছিল। সেটি অবস্থান পরিবর্তন করে এখন বিটিআরসি, করোনা বিডি অ্যাপ ও একটি বেসরকারি ব্যাংকের সার্ভারে অবস্থান করছে বলে সংস্থাটি বিবৃতি প্রদান করে।

সাইবার হামলার আশঙ্কায় উচ্চমাত্রার সতর্কতা জারি সরকারের ই-গভর্নমেন্ট কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিম (সার্ট) সাইবার হামলার আশঙ্কায় উচ্চমাত্রার সতর্কতা প্রকাশ করেছে। দেশের বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য এ সতর্কতা কার্যকর হবে। বুধবার এ সতর্কতা জারি করা হয়। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সূত্র জানায়, সার্ট এ বিষয়ে অনুসন্ধান করে দেশের কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের ওয়েব পেইজে ‘ক্যাসাব্ল্যাঙ্কা’ নামে স্পর্শকাতর এক ধরনের ভাইরাসের সন্ধান খুঁজে পেয়েছে। এ ভাইরাসটি বিভিন্ন আর্থিক খাত ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহ করছে কৌশলে। ভাইরাসটি অনেকটা উন্মুক্ত ধরনের। যে কারণে এটিতে অতিরিক্ত ঝুঁকি রয়েছে।

এবারের ভাইরাসটিকে উচ্চমাত্রার সাইবার আক্রমণের লক্ষণ বলে মনে করছে সার্ট। এ কারণে সম্ভাব্য সাইবার হামলা ঠেকাতে আর্থিক ও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবারেও সার্ট থেকে সতর্কতা জারি করা হয়। ভাইরাসটি আরও নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে বুধবার উচ্চমাত্রার সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ভাইরাসটির আক্রমনের ধরন সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য পেয়েছে সার্ট। এর মধ্যে ভাইরাসটি সরকারের করোনা বিডি অ্যাপে, মোবাইল ফোনের ডাটা সংগ্রহ ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহের দিকে ঝোঁক রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে কোনো সন্দেহজনক ঘটনা বা অনলাইন সিস্টেমসে কোনো সমস্যা দেখলে তা সঙ্গে সঙ্গে সার্টকে জানাতে বলা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সরকারের ই-গভর্নমেন্ট কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের (সার্ট) প্রকল্প পরিচালক তারেক এম বরকতউল্লাহ বলেন, ভাইরাসটি সম্পর্কে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। এটি বিশেষ কিছু খাতের ওয়েব পেইজের তথ্য ইতিমধ্যেই সংগ্রহ করছে। ম্যালওয়্যার ধরনের ক্যাসাব্ল্যাঙ্কা নামের এ ভাইরাসটি এবারই নতুন।

এর আগে এ ধরনের ভাইরাসের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, আগাম তথ্য পাওয়ায় সার্ট সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। এতে এটিও কোনো ক্ষতি করতে পারবে বলে মনে করি না। তবে বেশ সতর্ক থাকতে হবে। সূত্র জানায়, এবারের ভাইরাসটি আগের চেয়ে একটু বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। গত সেপ্টেম্বরের যে ম্যালওয়্যার ভাইরাসটি পাওয়া গিয়েছিল সেটি অনেকটা আবরণযুক্ত। এবারেরটি উন্মুক্ত। যে কারণে এটি বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। অপরিচিত বা অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো কিছু মেইলে বা অনলাইনে পাওয়া গেলে বা দেখা গেলে সেগুলোতে যাতে কেউ ক্লিক না করেন সে জন্য সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এর আগে গত বছরের সেপ্টেম্বরে দেশের আর্থিক খাতে সাইবার হামলা চালাতে ম্যালওয়্যার ভাইরাস পাঠানো হয়েছিল। উত্তর কোরীয় একটি হ্যাকার গ্রুপ এই ভাইরাসটি পাঠিয়েছিল। তবে ওই সময়ে আগে থেকে সতর্ক সংকেত পাওয়ায় ভাইরাসটি হামলা চালিয়ে সফল হতে পারেনি। পর্যায়ক্রমে এটিকে সব সার্ভার থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এরপর এ বছরের জানুয়ারিতে আরেকটি ম্যালওয়্যার ভাইরাসের সন্ধান পায় সার্ট। এটি বিভিন্ন সংস্থার অনলাইন সার্ভারকে কেন্দ্র করে অবস্থান করছিল। সেটি অবস্থান পরিবর্তন করে এখন বিটিআরসি, করোনা বিডি অ্যাপ ও একটি বেসরকারি ব্যাংকের সার্ভারে অবস্থান করছে বলে সংস্থাটি বিবৃতি প্রদান করে।

সাইবার হামলার আশঙ্কায় উচ্চমাত্রার সতর্কতা জারি সরকারের ই-গভর্নমেন্ট কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিম (সার্ট) সাইবার হামলার আশঙ্কায় উচ্চমাত্রার সতর্কতা প্রকাশ করেছে। দেশের বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য এ সতর্কতা কার্যকর হবে। বুধবার এ সতর্কতা জারি করা হয়। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সূত্র জানায়, সার্ট এ বিষয়ে অনুসন্ধান করে দেশের কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের ওয়েব পেইজে ‘ক্যাসাব্ল্যাঙ্কা’ নামে স্পর্শকাতর এক ধরনের ভাইরাসের সন্ধান খুঁজে পেয়েছে। এ ভাইরাসটি বিভিন্ন আর্থিক খাত ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহ করছে কৌশলে। ভাইরাসটি অনেকটা উন্মুক্ত ধরনের। যে কারণে এটিতে অতিরিক্ত ঝুঁকি রয়েছে। এবারের ভাইরাসটিকে উচ্চমাত্রার সাইবার আক্রমণের লক্ষণ বলে মনে করছে সার্ট। এ কারণে সম্ভাব্য সাইবার হামলা ঠেকাতে আর্থিক ও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবারেও সার্ট থেকে সতর্কতা জারি করা হয়। ভাইরাসটি আরও নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে বুধবার উচ্চমাত্রার সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ভাইরাসটির আক্রমনের ধরন সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য পেয়েছে সার্ট।

এর মধ্যে ভাইরাসটি সরকারের করোনা বিডি অ্যাপে, মোবাইল ফোনের ডাটা সংগ্রহ ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহের দিকে ঝোঁক রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে কোনো সন্দেহজনক ঘটনা বা অনলাইন সিস্টেমসে কোনো সমস্যা দেখলে তা সঙ্গে সঙ্গে সার্টকে জানাতে বলা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সরকারের ই-গভর্নমেন্ট কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের (সার্ট) প্রকল্প পরিচালক তারেক এম বরকতউল্লাহ বলেন, ভাইরাসটি সম্পর্কে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। এটি বিশেষ কিছু খাতের ওয়েব পেইজের তথ্য ইতিমধ্যেই সংগ্রহ করছে। ম্যালওয়্যার ধরনের ক্যাসাব্ল্যাঙ্কা নামের এ ভাইরাসটি এবারই নতুন। এর আগে এ ধরনের ভাইরাসের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, আগাম তথ্য পাওয়ায় সার্ট সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। এতে এটিও কোনো ক্ষতি করতে পারবে বলে মনে করি না। তবে বেশ সতর্ক থাকতে হবে। সূত্র জানায়, এবারের ভাইরাসটি আগের চেয়ে একটু বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। গত সেপ্টেম্বরের যে ম্যালওয়্যার ভাইরাসটি পাওয়া গিয়েছিল সেটি অনেকটা আবরণযুক্ত। এবারেরটি উন্মুক্ত। যে কারণে এটি বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। অপরিচিত বা অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো কিছু মেইলে বা অনলাইনে পাওয়া গেলে বা দেখা গেলে সেগুলোতে যাতে কেউ ক্লিক না করেন সে জন্য সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এর আগে গত বছরের সেপ্টেম্বরে দেশের আর্থিক খাতে সাইবার হামলা চালাতে ম্যালওয়্যার ভাইরাস পাঠানো হয়েছিল। উত্তর কোরীয় একটি হ্যাকার গ্রুপ এই ভাইরাসটি পাঠিয়েছিল। তবে ওই সময়ে আগে থেকে সতর্ক সংকেত পাওয়ায় ভাইরাসটি হামলা চালিয়ে সফল হতে পারেনি। পর্যায়ক্রমে এটিকে সব সার্ভার থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এরপর এ বছরের জানুয়ারিতে আরেকটি ম্যালওয়্যার ভাইরাসের সন্ধান পায় সার্ট। এটি বিভিন্ন সংস্থার অনলাইন সার্ভারকে কেন্দ্র করে অবস্থান করছিল। সেটি অবস্থান পরিবর্তন করে এখন বিটিআরসি, করোনা বিডি অ্যাপ ও একটি বেসরকারি ব্যাংকের সার্ভারে অবস্থান করছে বলে সংস্থাটি বিবৃতি প্রদান করে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM