1. admin@hostpio.com : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
  2. azmulaziz2021@gmail.com : Azmul Aziz : Azmul Aziz
  3. musa@informationcraft.xyz : musa :
রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন

আমার স্ত্রীর দিকে আঙুল তুললে সহ্য করবো না: নাসির

  • সময় বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ১০৭ বার দেখা হয়েছে

নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানা? খানিকটা ভুল হলো। তামিমা এখন থেকে আর সুলতানা নয়, তাঁর নামের সঙ্গে এখন থেকে যোগ হবেন ‘হোসেন।’

বনানীতে আজ এক হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে তামিমাকে আইন ও শরিয়তের বিধি মেনে বিয়ের কথা জানিয়েছেন ক্রিকেটার নাসির। সংবাদ সম্মেলনে নাসির স্পষ্ট ভাষায় বলেছেন, ‘এত দিন সে শুধু তামিমা ছিল, এখন ও হচ্ছে তামিমা হোসেন।’

কিছুদিন ধরেই বেশ বিতর্ক হচ্ছে ক্রিকেটার নাসিরের বিয়ে ঘিরে। অভিযোগ উঠেছে, নাসিরের স্ত্রী তামিমা তাঁর সাবেক স্বামীকে ডিভোর্স না দিয়েই নাকি এই নতুন বিয়ে করেছেন।

উত্তরা পশ্চিম থানায় এমন অভিযোগ তুলে সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন তামিমার সাবেক স্বামী রাকিব হাসান। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে সংবাদমাধ্যমে ঝড় ওঠে। সেই ঝড় থামাতে এবং নিজেদের অবস্থানে অটল থেকে বিয়ের বৈধতার ব্যাখ্যাটা আজ দিলেন নাসির।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নাসিরের স্ত্রী তামিমাকে নিয়ে সমালোচনা থেকে অশোভন সব রসিকতা চলছে। তাঁর সাবেক স্বামী রাকিব হাসানও অভিযোগের আঙুল তুলেছেন তামিমার বিরুদ্ধে।

এসবের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনে নাসির বলেন, ‘আজকে এটা তামিমার সঙ্গে হয়েছে। কাল এটা যে কারও সঙ্গেই হতে পারে। এত দিন সে শুধু তামিমা ছিল, এখন ও হচ্ছে তামিমা হোসেন। আমি চাইব না আমার বউয়ের দিকে কেউ আঙুল তুলে কথা বলুক এবং আমার বউকে নানান ধরনের কথাবার্তা বলুক। যারা যেখান থেকেই বলছে না কেন, আমি আইনগত ব্যবস্থা নেব।’ এরপর নিচু স্বরে তামিমাকে কিছু একটা জিজ্ঞেস করেন নাসির। সম্মতিসূচক হাসি লেগে ছিল তামিমার মুখে।

সংবাদকর্মীদের এরপর প্রশ্ন করতে দেওয়া হয়। তখন উপস্থিত সংবাদকর্মীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আজ একটি মামলা হয়েছে। এর জবাবে নাসির-তামিমার আইনজীবী বলেন, ‘আমরা এই সংবাদ সম্মেলন শুরুর কিছুক্ষণ আগে জানতে পেরেছি একটি মামলা হয়েছে। মামলাটা কী বিষয়ে হয়েছে তা আমরা জানতে পারিনি। তবে যদি কোনো মামলা হয়ে থাকে এবং সেখানে নাসির হোসেন অথবা তার স্ত্রীকে বিবাদী করা হয়, তাহলে আমরা আদালতে এর যথাযথ জবাব দেব।’

নাসির-তামিমার পক্ষ থেকে সরবরাহ করা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘২০১৬-১৭ সালে দুজনের মধ্যে বনিবনা না থাকায়, তামিমা সুলতানা যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে রাকিব হাসানকে তালাক প্রদান করেন।’

সংবাদ সম্মেলনে নাসির বলেন, ‘আইনগতভাবে, ইসলামি শরিয়ত মতে আমরা সবাইকে জানিয়ে বিয়ে করেছি।’ তামিমা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমি তালাকের জন্য আবেদন করি ২০১৬ সালে, সেটা অনুমোদন হয় ২০১৭ সালে।’

রাকিব হাসানের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবেন বলেও জানিয়েছেন নাসির। তামিমা বলেন, ‘আমার যত দূর মনে আছে, নয় মাস আগে নাসির আমার একটা ছবি ইনস্টাগ্রাম পেজে দেয়। এটা যথারীতি আলোচনা তুলেছিল। যখন ওকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, ও (নাসির) কিন্তু পরিষ্কার ভাষায় বলেছিল, এই সেই মেয়ে যাকে আমি বিয়ে করিনি। বিয়ে করলে ঘটা করেই করব, সবাইকে জানিয়ে। এরপর তিন মাস আগে হয়তো সে আরেকটি গণমাধ্যমেও জানিয়েছে, ওই ছবির মেয়েটাকেই আমি বিয়ে করতে যাচ্ছি। আমরা খুব ধুমধাম করে কাবিন করেছি। কাবিনের পর গায়েহলুদও করেছি। রিসিপশনের আগে সে (রাকিব হাসান) কীভাবে হঠাৎ করে জানতে (বিয়ে) পারে? এটা তো হঠাৎ করে হয়নি। এক বছর যাবৎ নাসির ধারাবাহিকভাবে বলে আসছে, এই মেয়েকেই আমি বিয়ে করছি। নাসির খোলাখুলিভাবে এটা সবাইকে বলেছে।’

পেশায় কেবিন-ক্রু তামিমা আত্মপক্ষ সমর্থন করে বলেন, ‘যেহেতু আমি একটি জায়গায় চাকরি করি, সেক্ষেত্রে আমি মিডিয়ার সামনে আসতে চাচ্ছিলাম না। সে (নাসির) আমাকে হয়তো সেভাবে উপস্থাপন করতে চায়নি। কারণ বিয়ে করলে তো এমনিতেই সবাই দেখবে। তাহলে উনি (রাকিব) হঠাৎ করে কীভাবে জানতে পারেন? উনি যেটা করছেন এই প্ল্যাটফর্মকে (সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম) পাওয়ার জন্য।’

তামিমা স্পষ্ট ভাষায় বলেন, ‘আমরা দোষী নই। আমার কোথাও ভয় কাজ করেনি। আমি কোনো ভুল করিনি। উনি (রাকিব) যে বলছেন আমার বাসায় আইনজীবী, পুলিশ পাঠানো হয়েছে, এগুলো পুরোপুরি মিথ্যে কথা। আমার বাসায় আইনজীবী আসেনি, কেউ আসেনি।’

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM