1. admin@hostpio.com : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
  2. azmulaziz2021@gmail.com : Emon : Armanul Islam
  3. musa@informationcraft.xyz : musa :
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫১ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :

মনোযোগ দখলের লড়াই!

  • সময় বুধবার, ১৯ মে, ২০২১
  • ২২৭ বার দেখা হয়েছে

মনোযোগ দখলের লড়াই!

ট্রিস্টান হ্যারিস বলেন, ব্যাপারটা হয়ে দাঁড়িয়েছে আসলে একটা মনোযোগ দখলের লড়াই! প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে চলছে প্রতিযোগিতা যে কে কার চেয়ে বেশি মনোযোগ ধরে রাখতে পারে ব্যবহারকারীদের। এবং এটার জন্যে তার যা যা করা দরকার সে তা করবে! তাতে আপনার কল্যাণ-অকল্যাণ, ইচ্ছা-অনিচ্ছার কোনো দাম নেই। ধরুন, ইউটিউব। ভিডিও এই অ্যাপটিতে একটা কিছু দেখা শেষ হওয়ামাত্রই দেখবেন একগাদা নতুন ভিডিও সাজেস্ট করছে। আপনি দেখতে চান কি না, আপনার সেই মতামতের কিন্তু কোনো সুযোগ নেই এখানে! ট্রিস্টান হ্যারিস বলেন, কল্যাণকামী প্রডাক্ট ডিজাইনের নীতি তো এমন হবে না কখনো!

আবার মনোযোগের লড়াইয়ে জেতার জন্যে কোম্পানিগুলো এখন যে-কোনো কিছু করতে মরিয়া! ধরুন, ইউটিউবের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী কে? হয়তো ফেসবুক। কেন? কারণ মানুষটি যখন ফেসবুকে আছে, তখন তো ইউটিউব দেখতে পারছে না! তো এ  এমনকি সেটার জন্যে যদি আপনার ঘুম কেড়ে নিতে হয়, তাহলে তা-ও। কিছুদিন আগে নেটফ্লিক্স- আমেরিকার বড় একটি বিনোদন কোম্পানির সিইও তার এক বক্তব্যে বলছিলেন, নেটফ্লিক্সের প্রতিদ্বন্দ্বী হলো তিনজন- ১. ইউটিউব ২. ফেসবুক ৩. ঘুম

কারণ তারা দেখছে যে, প্রতিটি মানুষের সময় হচ্ছে সীমিত। এই সময়টা সে সেখানেই দেবে, যেখানে সে বেশি আকর্ষণ বোধ করবে। মানুষের সীমিত সময়ের ভাগ পাওয়ার জন্যে তাই চলছে তাদের মধ্যে কাড়াকাড়ি। লড়াইটা তাই কে কার চেয়ে বেশি আকর্ষণীয়, আসক্তিকর পণ্য তৈরি করতে পারে, সেখানে! কাজেই যে ফোনটা হাতে নিয়ে আপনি বসে আছেন, আপনি নিশ্চিত থাকুন, এ মুহূর্তে এই ফোনটার অপরপ্রান্তে বসে হাজারেরও বেশি প্রযুক্তিবিদ অক্লান্ত কাজ করে যাচ্ছে, কীভাবে আরো বেশি সময় ধরে আপনাকে ফোনে বসিয়ে রাখা যায়।

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM