1. [email protected] : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
  2. [email protected] : Emon : Armanul Islam
  3. [email protected] : musa :
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন

স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিশ্ব মেডিটেশন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

  • সময় সোমবার, ২১ জুন, ২০২১
  • ২১২ বার দেখা হয়েছে

স্বাস্থ্যবিধি মেনে বর্ণিলভাবে অনুষ্ঠিত হল বিশ্ব মেডিটেশন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

২১ জুন ২০২১ সোমবার যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হল বিশ্ব মেডিটেশন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বাক্য লিখন, রচনা, চিত্রাঙ্কন, আলোকচিত্র, অডিও-ভিডিও প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। বয়সভিত্তিক পাঁচটি ক্যাটাগরিতে এ প্রতিযোগিতায় ৫৮ জন বিজয়ী প্রত্যেকে ১০ হাজার টাকার অর্থাৎ মোট প্রায় ৬ লক্ষ টাকার বই পুরস্কার পেয়েছে। বিজয়ীরা ছাড়াও প্রত্যেক অংশগ্রহণকারী একটি করে সার্টফিকেটের পাশাপাশি ‘শুদ্ধাচার’ বই উপহার পেয়েছেন।

রাজধানীর কাকরাইলের আইডিইবি ভবনে সন্ধ্যা ৭.১৫টা থেকে দেড় ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশের বরেণ্য শিক্ষাবিদ, লেখক, গবেষক, টিভি ব্যক্তিত্ব ও পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম শমশের আলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষাবিদ, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের স্বপ্নদ্রষ্টা ও কম্পিউটার বিজ্ঞানী ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক মাদাম নাহার আল বোখারী। এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের পরিচালক সমন্বয় মিসেস সুরাইয়া রহমান।

প্রধান অতিথি বরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম শমশের আলী তার বক্তব্যে বলেন, মেডিটেশন চর্চা করলে শারীরিক মানসিক আত্মিক উৎকর্ষ সাধিত হয়। তাই সবারই উচিত নিয়মিত মেডিটেশন চর্চা করা। শিশু-কিশোররা এইরকম আত্মোন্নয়নমূলক ভালো চর্চায় সম্পৃক্ত হলে তারা অনেক বড় মানুষ হবে। জাতি এগিয়ে যাবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের স্বপ্নদ্রষ্টা ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ বলেন, তরুণদের মেধা বিকাশের জন্যে নানা ধরনের সৃষ্টিশীল কাজের প্রতিযোগিতা আয়োজন করা জরুরি। চিত্রাঙ্কন, রচনা, ফটোগ্রাফ ইত্যাদি প্রতিযোগিতার ভেতর দিয়ে তারা মননশীল জগতে প্রবেশ করছে। মেডিটেশনের মতো একটি ইতিবাচক অনুশীলন তাদেরকে আরও দক্ষ সৃজনশীল করবে বলে আশা করি।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে মাদাম নাহার আল বোখারী বলেন, এই কিশোর-তরুণ ধ্যানীরাই ইতিবাচকতার শক্তিতে নির্মাণ করবে আগামীর মানবিক মহাসমাজ। এ লক্ষ্যেই ফাউন্ডেশন কিশোর-তরুণদের মাঝে ধ্যান, ইতিবাচকতা, মানবিকতা বিকাশে কাজ করছে।

সভাপতির বক্তব্যের পর বিজয়ীদের হাতে সার্টিফিকেট ও পুরস্কার তুলে দেয়ার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM