1. [email protected] : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
  2. [email protected] : Emon : Armanul Islam
  3. [email protected] : musa :
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:২১ অপরাহ্ন

আচরণগত সমস্যা

  • সময় সোমবার, ১৯ জুলাই, ২০২১
  • ১২২ বার দেখা হয়েছে
বয়ঃসন্ধিকালে যে আচরণগত সমস্যা হয় সেগুলোসহ সব বয়সের আচরণ সমস্যার ক্ষেত্রেই মেডিটেশনের কার্যকারিতা উল্লেখযোগ্য। ২০০৮ সালে বিজ্ঞানী সিং ৬ জন উদ্ধত স্বভাবের মানুষ যারা রেগে গেলে গালিগালাজ এমনকি মারামারি করতেও অভ্যস্ত ছিল তাদেরকে মেডিটেশন শেখান।
ফলাফলে দেখা গেল, মেডিটেশন করে তাদের স্বভাব অনেক শান্ত হয়েছে। এ গবেষণা থেকে এটা প্রতীয়মান হয়েছে যে, পূর্ণবয়স্ক মানুষদের আচরণের ঔদ্ধত্যকে কমানোর ক্ষেত্রে একটি সাশ্রয়ী ক্লিনিক্যাল চিকিৎসাপদ্ধতি হতে পারে মেডিটেশন।
বিজ্ঞানী সিং তার আরেকটি গবেষণায় খানিকটা মানসিক সমস্যা ছিল এবং বদমেজাজের কারণে সামাজিক গ্রহণযোগ্যতাও দিনকে দিন কমে যাচ্ছিল এমন ৩ জন ব্যক্তির ওপর মেডিটেশনের প্রভাব পর্যবেক্ষণ করে দেখেন মেডিটেশন চর্চা শুরু করার পর যত দিন যাচ্ছিল ততই তাদের আচরণে উন্নতি পরিলক্ষিত হচ্ছিল।
এমনকি ফলোআপে দেখা গেছে, পরবর্তী দুবছরে তাদের অবস্থা এতটাই ভালো হয়েছে যে, সামাজিক গ্রহণযোগ্যতা তারা ফিরে পেয়েছে পুরোমাত্রায়।
ডা. বার্নেস ৪৫ জন আফ্রো-আমেরিকান তরুণ যাদের বয়স ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সের মধ্যে তাদের ওপর এক পরীক্ষা চালান। এদের মধ্যে ২৫ জনকে মেডিটেশন শেখানো হয় বাকি ২০ জনকে দেয়া হয় শুধু স্বাস্থ্য বিষয়ক শিক্ষা। প্রথম গ্রুপের ছাত্ররা প্রতিদিন বাসায় ও স্কুলে ১৫ মিনিট করে মেডিটেশন করল ৪ মাস।
২য় গ্রুপের ছাত্রদেরকে এই ৪ মাসের প্রতিদিন ১৫ মিনিট ধরে দেয়া হয় স্বাস্থ্য বিষয়ক শিক্ষা। মেডিটেশন গ্রুপের ক্ষেত্রে দেখা গেছে, কন্ট্রোল গ্রুপের তুলনায় তাদের অনুপস্থিতির হার কমেছে, সহিংসতা কমেছে এবং আচরণগত জটিলতার কারণে স্কুল পালানোর প্রবণতা কমেছে।
বিজ্ঞানী বার্নহফার ২০ জন মানসিকভাবে বিষণ্ন মানুষ যারা কোনো না কোনোসময় আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিল তাদের ওপর একটি পরীক্ষা চালান। দৈবচয়নের মাধ্যমে বাছাই করা কয়েকজনকে ৮ সপ্তাহব্যাপী মেডিটেশন কোর্স করানো হয়।
বাকিদের দেয়া হয় প্রচলিত চিকিৎসা। ৮ সপ্তাহ পর তাদের ব্রেনের ইইজি করে দেখা যায়, যে বিষণ্নতা থেকে আত্মহত্যার প্রবণতা দেখা দেয় মেডিটেশন যারা করেছেন তাদের ক্ষেত্রে তা কম।

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM