1. [email protected] : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
  2. [email protected] : Emon : Armanul Islam
  3. [email protected] : musa :
শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৫০ পূর্বাহ্ন

প্রতারণার এ দায় শুধু তারকাদের নয়!

  • সময় শুক্রবার, ১ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫২ বার দেখা হয়েছে

প্রতারণার ক্ষেত্রে প্রতারক কোম্পানিগুলো যেরকম দায়ী একইভাবে যাদের কথা শুনে বা যাদের বক্তব্য দেখে মানুষ প্রলুব্ধ হয় তাদের কি কোনো দায় নেই? যারা এ ধরনের কোম্পানির পক্ষে শুভেচ্ছা দূত হন যারা তাদের বিজ্ঞাপনে অংশ নেন তাদেরকে কি দায়মুক্ত ভাবা যায়?

২০১৬ সালে একটি নুডলস কোম্পানির বিজ্ঞাপন করার জন্যে ভারতের তিনজন খ্যাতনামা অভিনেতা অভিনেত্রী অমিতাভ বচ্চন প্রীতি জিনতা ও মাধুরী দীক্ষিত ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন। তখন এই নুডলসে ক্ষতিকর রাসায়নিক পাওয়া গিয়েছিল বলে ভারতজুড়ে হইচই পড়ে যায়।

ভারতের তদানীন্তন আইনমন্ত্রী তখন বিভ্রান্তিকর ও ভুয়া তথ্য বা দাবি করা পণ্য বা সেবার বিজ্ঞাপন বা সেগুলো অনুমোদনের ক্ষেত্রে অনুমোদনকারী তারকার ব্যক্তিগত দায় নির্ধারণ ও সাজার বিধান করে আইন প্রস্তাব করেন।

সেই একই সময়ে চীনে আইন ছিল- কোনো তারকা কোনো পণ্যের বিজ্ঞাপন করতে চাইলে তাকে ব্যক্তিগতভাবে সেই পণ্য ব্যবহার করে এর গুণগত মান সম্পর্কে নিশ্চিত হতে হবে।

ভারত ও বাংলাদেশে ভোক্তার স্বার্থ সুরক্ষা আইন রয়েছে। তাতে বিভ্রান্তিকর বিজ্ঞাপনে ভোক্তার ক্ষতির জন্যে জেল জরিমানার বিধান রয়েছে।

কিন্তু আইনে বিজ্ঞাপনে অংশগ্রহণ ও পণ্য বা সেবা অনুমোদন অথবা সুপারিশের জন্যে তারকাদের ব্যক্তিগত দায় নির্ধারণ করা নেই।

সম্ভবত একারণেই তারকারা কোনো যাচাইবাছাই ছাড়াই এই পণ্য বা কোম্পানিগুলোর কাজের প্রতিনিধিত্ব করতে রাজি হয়ে যান। কিন্তু তারা যে নিজেদের ভাবমূর্তি এতে বিনষ্ট করেন সেটি খেয়াল করেন না।

আসলে তাদের ওপরে তাদের ভক্তদের এক ধরনের আস্থা আছে। অসচেতনতার জন্যে আস্থার অপব্যবহার হয়ে গেলে তাদের অবশ্যই সেজন্যে ভুল স্বীকার করা এবং ক্ষমা চাওয়া উচিৎ।

আসলে এ দায় শুধু তারকাদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। জাতীয় পর্যায়ের প্রতিষ্ঠান যদি এ ধরনের প্রতারণামূলক ব্যবসায়িক উদ্যোগে ব্যবহৃত হয় তাহলে সেই জাতীয় প্রতিষ্ঠানের দায়ও কিন্তু কম নয়।

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM