1. [email protected] : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
ইফতার বিতরণ করলো আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যরা বাংলাদেশ আরএমজি প্রফেশনালস্ এর উদ্যোগে দুঃস্থ ও অসহায় মানুষদের মাঝে ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ- গাজীপুরে এতিম শিশুদের সাথে বিডিআরএমজিপি এফএনএফ ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল গ্রীষ্মকাল আসছে : তীব্র গরমে সুস্থ থাকতে যা করবেন ৭ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্পে কাঁপল তাইওয়ান, সুনামি সতর্কতা ঈদের আগে সব সেক্টরের শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবি এবি পার্টির সালমান খান এবার কি বচ্চন পরিবার নিয়ে মুখ খুলতে যাচ্ছেন ঐশ্বরিয়া? আমার ও দেশের ওপর অনেক বালা মুসিবত : ইউনূস লম্বা ঈদের ছুটিতে কতজন ঢাকা ছাড়তে চান, কতজন পারবেন?

ইতিহাসে ডিসেম্বর ১৮ সাংবাদিক ও লেখক শহীদ সাবের জন্মগ্রহণ করেন

  • সময় রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৭৯৯ বার দেখা হয়েছে

গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জি অনুসারে আজ বছরের ৩৫২তম (অধিবর্ষে ৩৫৩তম) দিন। এক নজরে দেখে নিই ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য কিছু ঘটনা বিশিষ্টজনের জন্ম ও মৃত্যুদিনসহ আরও কিছু তথ্যাবলি।

ঘটনাবলি

১৮৬৫ : মার্কিন সংবিধানের ১৩শ সংশোধনী ঘোষণা করার ফলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে দাসপ্রথা বিলুপ্ত হয়।
১৯৭১ : সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশে অস্থায়ী সরকারের মন্ত্রীসভার প্রথম বৈঠক ঢাকায় অনুষ্ঠিত।
১৯৭২ : সংবিধান অনুযায়ী বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট প্রথম কার্যক্রম শুরু করে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

জন্ম

১৮২৪ : লালবিহারী দে, ব্রিটিশ ভারতীয় সাংবাদিক ও খ্রিষ্টান মিশনারি।
১৮৫৬ : জে জে টমসন, নোবেলজয়ী ইংরেজ পদার্থবিদ এবং অধিবিদ্যাবিৎ।
১৮৭০ : সাকি, ব্রিটিশ ছোট গল্পকার।
১৮৯০ : এডউইন হাওয়ার্ড আর্মস্ট্রং, মার্কিন প্রকৌশলী, এফএম রেডিওর জনক।
১৯৩০ : শহীদ সাবের,সাহিত্যিক-সাংবাদিক।
১৯৩৯ : হ্যারল্ড ইলিয়ট ভারমাস, মার্কিন জীববিজ্ঞানী এবং অধিবিদ্যাবিৎ, নোবেল পুরস্কার বিজয়ী।

মৃত্যু

১৯৮৪ : ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের কর্মী ও সমাজসেবী শক্তিরঞ্জন বসু
২০০৬ : ভারতীয় বাঙালি চিত্রশিল্পী বিকাশ ভট্টাচার্য

দিবস

আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস (জাতিসংঘ)
সুপ্রিম কোর্ট দিবস (বাংলাদেশ)

শহীদ সাবের

শহীদ সাবের ছিলেন বাংলাদেশের একজন সাংবাদিক ও লেখক। মুক্তিযুদ্ধে শহীদ তিনি। প্রকৃত নাম ছিল একেএম শহীদুল্লাহ। লেখক হিসেবে নাম ছিল শহীদ সাবের। জন্মগ্রহণ করেন ১৯৩০ সালের ১৮ ডিসেম্বর কক্সবাজারের ঈদগাঁ গ্রামে। বাবা সালামতউল্লাহ এবং মা শরিফা খাতুন।

ঈদগাঁ প্রাইমারি স্কুলে তার প্রাথমিক শিক্ষার শুরু। চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত অধ্যয়নের পর বাবার কর্মস্থল কলকাতায় হেয়ার স্কুলে ভর্তি হন। ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পর তিনি চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলে অধ্যয়ন করেন এবং ওই স্কুল থেকে ১৯৪৯ সালে ম্যাট্রিক পাস করেন। আইএ ক্লাসে ভর্তি হন চট্টগ্রাম সরকারি কলেজে। ১৯৫৫ সালে জগন্নাথ কলেজ থেকে বিএ পাশ করেন।

ঢাকার ওয়েস্ট এন্ড হাইস্কুলে কিছুকাল সহকারী শিক্ষক পদে চাকরির পর তিনি দৈনিক সংবাদ-এর সহকারী সম্পাদক পদে যোগ দেন। এসময় তিনি ফেডারেল ইনফরমেশন সার্ভিস পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেন। কিন্তু রাজনৈতিক বন্দি থাকার কারণে তাকে নিয়োগ দেয়া হয়নি।

প্রচণ্ড মেধাবী, শিক্ষকদের প্রিয় ছাত্র ছিলেন তিনি। স্কুলে পড়ার সময়ই শহীদ সাবের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সঙ্গে জড়িত হন। কলকাতার পার্ক সার্কাসের বালুহক্কাক লেনে ‘ছোটদের আসর’ নামে একটি সংগঠন ছিল। শহীদ সাবের ছিলেন এই সংগঠনের লাইব্রেরিয়ান। এ সময় তিনি ছন্দশিখা নামের একটি দেয়াল পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। একসময় তিনি চট্টগ্রামে মুকুল ফৌজ আন্দোলনের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন।

ছাত্রাবস্থায়ই সাহিত্য-সংস্কৃতির প্রতি তার ঝোঁক ছিল। ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত থাকার কারণে ১৯৫০ সালে সাবেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। জেলে থাকা অবস্থায় তিনি তার জীবন ও সংগ্রামের উপর ‘আরেক দুনিয়া থেকে’ শীর্ষক লেখাটি শেষ করেন। এই লেখাটি তাকে লেখক হিসেবে খ্যাতির শীর্ষে নিয়ে যায়। ১৯৫৮ সালের শেষের দিকে শহীদ সাবেরের মানসিক বৈকল্য ঘটে।

উল্লেখযোগ্য সাহিত্যকর্মের মধ্যে রয়েছে: কারাগারে বসে লেখা ‘আরেক দুনিয়া থেকে’ (কলকাতার নতুন সাহিত্য পত্রিকায় চৈত্র ১৩৫৭ সংখ্যায় প্রকাশিত), গল্প সংকলন ‘এক টুকরো মেঘ’ (১৯৫৫), শিশু সাহিত্য ‘ক্ষুদে গোয়েন্দার অভিযান’ (১৯৫৫), অনুদিত গ্রন্থ ‘ইসকাপনের বিবি’, ‘পাগলের ডায়রি’, ‘কালো মেয়ের স্বপ্ন’ ইত্যাদি।

সম্মাননা ও স্বীকৃতি

বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্যে স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলা একাডেমি পুরষ্কার (মরণোত্তর, ১৯৭২, ছোটগল্প), চট্টগ্রামস্থ কক্সবাজার সমিতির কক্সবাজার পদক (১৯৮৯), কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী পুরস্কার (মরণোত্তর-২০০৩), কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের কক্সবাজার পদক (মরণোত্তর-২০০৪) এবং সবুজ বাংলা সংসদ পুরস্কার (মরণোত্তর-২০১১) পান শহীদ সাবের। তাছাড়া স্বাধীনতার পর শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মরণে ২ টাকার দামের ডাকটিকেট প্রকাশ করে বাংলাদেশ সরকার। এ ছাড়া জাতীয় প্রেস ক্লাব এবং পিআইবিতে যে তের জন শহীদ সাংবাদিকের স্মৃতিফলক লাগানো আছে সেখানে শহীদ সাবেরের নামও রয়েছে। তাছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালায় শহীদ সাবেরের বেশ কিছু নিদর্শন রয়েছে।.

শহীদ সাবের দৈনিক সংবাদ অফিস ভবনেই থাকতেন। ১৯৭১ সালের ৩১ মার্চ সকালে পাকিস্তান সেনারা সংবাদ অফিস পুড়িয়ে দিলে আগুনে পুড়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

 

সূত্র: সংগৃহীত

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM
Translate »