1. [email protected] : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৫৬ অপরাহ্ন

”গাজীপুরে শ্রমিক অসন্তোষ, আন্দোলন ঠেকাতে ৬ কারখানায় ছুটি ঘোষণা”

  • সময় মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৭৪ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ করেসপনডেন্ট, গাজীপুর:
গাজীপুরের টঙ্গীতে দুটি পোশাক কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটির পর শ্রমিক আন্দোলন এড়াতে পার্শ্ববর্তী ছয়টি কারখানায় ছুটি ঘোষণা করেছে কারখানাগুলোর কর্তৃপক্ষ।
সোমবার (৮ জানুয়ারি) সকালে পোশাক শ্রমিকদের নতুন মজুরি কাঠামোতে পাওনা পরিশোধের দবিতে টঙ্গীর বিসিক এলাকার একই মালিকানাধীন সুমি অ্যাপারেলস লিমিটেড ও দিশারী ইন্ডাস্ট্রিজ প্রাইভেট লিমিটেড নামক কারখানা দুইটিতে শ্রমিক সন্তোষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আন্দোলন ঠেকাতে বেলা ১২টার দিকে পার্শ্ববর্তী ত্রিভলী অ্যাপারেলস লিমিটেড, জিন্স এন্ড পোলো, রেডিসন গার্মেন্টস লিমিটেড, আর বি এস ফ‍্যাশন অ্যাপারেলস লিমিটেড, বেলিসীমা অ্যাপারেলস লিমিটেড এবং পেট্রিয়ট ইকো গার্মেন্টস লিমিটেড নামক ছয়টি কারখায় ছুটি ঘোষণা করে কারখানা কতৃপক্ষ।
মূলত, গত বছরের ৯ এপ্রিল গঠিত ন্যূনতম মজুরি বোর্ডে শ্রমিক ও মালিক পক্ষের প্রতিনিধিদের দাবি অনুযায়ী, গেজেটে পোশাক শ্রমিকদের গ্রেড সংখ্যা সাত থেকে কমিয়ে পাঁচ করা হয়। গত ১ ডিসেম্বর থেকে নতুন মজুরি কার্যকর এবং জানুয়ারিতে নতুন কাঠামোয় পোশাক শ্রমিকরা বেতন পাওয়ার কথা ছিল। তবে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে কারখানা দুইটির মালিক শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ করেনি বলে অভিযোগ শ্রমিকদের।
কারখানা দুইটির কয়েক হাজার শ্রমিক গত শনিবার কাজে যোগ দিয়ে ডিসেম্বর মাসের বেতন পরিশোধ করার দাবি জানান। পরে কারখানা কর্তৃপক্ষ নতুন মজুরি কাঠামোতে বেতন পরিশোধ করতে পারবেন না বলে জানান। গতকাল রোববার (৭ জানুয়ারি) জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষ্যে সারা দেশে সাধারণ ছুটি শেষে আজ সোমবার সকালে কারখানা দুটি শ্রমিকরা কাজে যোগ দিতে যান। তবে কারখানার প্রধান ফটকে কারখানা বন্ধের নোটিশ দেখতে পেয়ে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন শ্রমিকরা।
কারখানাটির শ্রমিকরা বলেন, এই কারখানা দুটি একই মালিকের। গত শনিবার নতুন মজুরি কাঠামোতে বেতন পরিশোধের দাবি জানালে কারখানা মালিক তাতে রাজি হননি। সোমবার সকালে কারখানায় কাজে যোগ দিতে আসলে মূল ফটকে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধের নোটিশ দেখতে পায় শ্রমিকরা। পরে জানতে পারেন, এটি কারখানা কর্তৃপক্ষ টানিয়ে দিয়েছে।
পরে দুপুর ২টার দিকে কারখানা দুইটির বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা পার্শ্ববর্তী ছয়টি পোশাক কারখানার শ্রমিকদের তাদের সাথে আন্দোলনে যোগ দিতে অনুরোধ করে। তবে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে দুপুরেই ওই ছয়টি কারখানার কর্তৃপক্ষ তাদের কারখানায় ছুটি ঘোষণা করেন।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM
Translate »