1. [email protected] : আরএমজি বিডি নিউজ ডেস্ক :
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন

সন্তান আপনার সাফল্যের পথে অন্তরায় নয়

  • সময় সোমবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২২
  • ৪৬২ বার দেখা হয়েছে

চারের কম নয়, বেশি হলে ভালো হয়!

Thank you for reading this post, don't forget to subscribe!

অভিনন্দন জানাই যারা চার সন্তান নিচ্ছেন তাদের। কারণ তারা যে বুদ্ধিমান, এটা তারা প্রমাণ করেছেন।

যারা মানে সঙ্গত কারণে সন্তান নিতে পারেন নি, সেটা আলাদা ব্যাপার। তাদের আল্লাহতায়ালা অন্য নেয়ামত দিয়েছেন।

এবং চার সন্তান কিন্তু আমরা আজকে থেকে বলছি না। ৩০ বছর ধরে বলছি যে- চারের কম নয়, বেশি হলে ভালো হয়।

এক বা দুই সন্তানের নীতিনির্ধারকদের কয় সন্তান?

এবং যারা এক সন্তান, দুই সন্তানের কথা বলেছে তারা কী করছে?

আপনি দেখেন আমাদের দেশে এক সন্তান নীতি চালু করার চেষ্টা করেছিল।

তো বাঙালি তো আবার ধরে ফেলে যে, মতলব আছে কিছু। অনেক সময় সাথে সাথে ধরতে না পারলেও পরে ধরে ফেলে।

তো আমেরিকান প্রেসিডেন্ট এখন যে জো বাইডেন, তার দুই ছেলে, দুই মেয়ে। চার সন্তান।

দরিদ্র দেশগুলোর জনসংখ্যা কমানোর জন্যে যার শাসনামলে সবচেয়ে জোরালো হয়েছিল–জিমি কার্টার। জিমি কার্টারের চার সন্তান।

ইংল্যান্ডের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন স্পষ্ট করে জানান নি যে, তার কয়টা সন্তান। তবে এখন পর্যন্ত ছয় সন্তানের খোঁজ পাওয়া গেছে তার। এটা রিয়ালিটি।

এবং তার পূর্বসুরি দুই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার এবং ডেভিড ক্যামেরন, প্রত্যেকের চার সন্তান।

এখন তো ইমানুয়েল ম্যাক্রো তার আগে ছিলেন ফ্রান্সের ফ্রঁসোয়া ওলঁদ এবং তার আগে ছিলেন নিকোলাস সার্কোজি। এই ফ্রঁসোয়া ওলঁদ এবং নিকোলাস সার্কোজির দুজনেরই চারটি করে সন্তান।

বুঝলেন? তাদের বেলায় চারটা আর আমাদের বেলায় একটা। কী সুন্দর নিয়ম!

সাত সন্তানের মা হয়েও যিনি জার্মানির প্রতিরক্ষামন্ত্রী এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট!

এবং এর মধ্যে সবচেয়ে মজা হয়েছে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট, ইমানুয়েল ম্যাক্রো। তিনি ১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এক বক্তব্য দিয়েছিলেন যে, Please, present me the lady who decided, being perfectly educated, to have seven, eight or nine children.

তো এই বক্তব্যেরর মাথায় ইউরোপিয়ান কমিশনের তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মনোনীত হন তিনি জার্মানির প্রতিরক্ষামন্ত্রী ছিলেন। যেই সেই না, মহিলা প্রতিরক্ষামন্ত্রী হওয়া মানেটা কী! ডাকসাইটে মহিলা, উরসুলা ভন ডর লিয়েন।

তো তিনি নিজে চিকিৎসক ছিলেন এবং মেডিকেলে পড়াতেন। জনস্বাস্থ্যে তার উচ্চতর ডিগ্রিও আছে। এবং তার স্বামী স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক।

এবং উরসুলা লিয়েনের সন্তান সংখ্যা মাত্র সাত জন।

তো সাত সন্তানের মা হয়ে যদি উনি প্রতিরক্ষামন্ত্রী হতে পারেন জার্মানির এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট হতে পারেন, তো তাহলে কী বুঝতে হবে! সন্তান আপনি নেবেন কী নেবেন না, কয়টা নেবেন, এটা আপনার ইচ্ছার ওপরে নির্ভর করে। এবং সন্তান আপনার সাফল্যের পথে অন্তরায় নয়।

জনসংখ্যার হার বাড়ানো উচিৎ কেন?

এবং এই যে বিল গেটস এত উদ্যোগী। তার কয় সন্তান? তিন সন্তান।

ওয়ারেন বাফেটের কয় সন্তান? তিন সন্তান। জেফ বেজোসের চার সন্তান।

অতএব আমাদের ৩০ বছর ধরে যে বলছি, চারের কম নয়, সাত জন হলেও কী হচ্ছে আরকি? কোনো অসুবিধা নাই।

তো আসলে আমাদের জনসংখ্যার ব্যাপারে এজন্যে উদ্যোগী হতে হবে যে, আমাদের জনসংখ্যার রেশিওটা কিন্তু যে হারে বাড়া উচিৎ, সে হারে বাড়ছে না।

এই যে যারা যাদের কথা উল্লেখ করলাম, তারা সবাই প্রতিষ্ঠিত স্ব স্ব ক্ষেত্রে।

অতএব সন্তান কখনো আপনার সাফল্যের পথে অন্তরায় নয়।

[সজ্ঞা জালালি, ১৮ আগস্ট, ২০২১]

শেয়ার করুন

এই শাখার আরো সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © RMGBDNEWS24.COM
Translate »